সাংবাদিক টিপুকে মুক্ত করতে টিপু মুক্তি পরিষদ কমিটি গঠন আহবায়ক আলহাজ্ব শেখ মকন মিয়া চেয়ারম্যান, সদস্য সচিব সাংবাদিক এম. এ মালেক

সিলেট

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে আটক দৈনিক সবুজ সিলেট পত্রিকার সিনিয়র ফটো গ্রাফার ও মদন মোহন বিশ্ব বিদ্যালয় কলেজের শিক্ষার্থী নিজাম উদ্দিন টিপুকে কারাগার থেকে মুক্ত করতে টিপু মুক্তি পরিষদ নামে একটি সংগঠন গঠন করা হয়েছে। রবিবার (৫ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা ৭টায় সিলেট জেলা ব্যবসায়ী কল্যাণ পরিষদের সভাপতি আলহাজ্ব মকন মিয়া চেয়ারম্যান এর বাসভবনে এ সংগঠন আত্মপ্রকাশ করা হয়।

সভায় সর্বসম্মতিক্রমে সিলেটের বিভাগের প্রবীন মুরব্বি ও সালিশ ব্যাক্তিত ১নং মুল্লারগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের বার বার নির্বাচিত চেয়ারম্যান সিলেট জেলা ব্যবসায়ী কল্যাণ পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি জননেতা আলহাজ্ব মকন মিয়া চেয়ারম্যানকে আহবায়ক নির্বাচিত করা হয় এবং নিজাম উদ্দিন টিপুকে কারামুক্ত করতে সব ধরনের সহযোগিতা করবেন বলে সবার সম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। সভাপতির বক্তব্যে আলহাজ্ব শেখ মকন মিয়া চেয়ারম্যান বলেন, টিপু এখনও শিক্ষার্থী পাশাপাশি সে সাংবাদিকতা পেশায় জড়িত। আমরা তাকে ভালো করে চিনি। সে একটি ভালো ছেলে। সে কোন অবস্থায় অন্যায় কোন কাজে জড়িত হতে পারে না। সংবাদের সততা থাকলে সংবাদ প্রকাশ করা কোন অপরাধ নয়। আজ যদি আমরা টিপুর পাশে না দাড়াই তাহলে ভয়ে অনেক প্রতিভাবান যারা দেশ ও জাতির কল্যানে সংবাদ পত্রের মাধ্যমে জনগণের অধিকার ও দেশের কল্যাণে কাজ করছে তারা আগ্রহ হারিয়ে ভয়ে এই পেশা ছেড়ে দিবে। এতএব শেষ বয়সে এসে টিপুর মতো একজন সৎ ও নিষ্ঠাবান মেধাবী, শিক্ষিত ছাত্র টিপুর পাশে মানবিক কারণে দাড়ানো উচিত। কোন চক্রান্তের স্বীকার হয়ে বিনাদুষে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ছোট ছেলেটি কারাগারে বন্দি থাকবে আর আমরা সিলেটবাসী নিরপরাধ একটি সম্ভাবনাময় ছেলে শুধু সংবাদ পত্রে কাজ করার কারণে কোন মহলে ব্যক্তিগত আক্রোশের স্বীকার হতে পারে। আমরা সিলেটবাসী কখনোও অন্যায়ের সাথে মাতানত করতে পারিনা। সাংবাদিকরা জীবনের ঝুকি নিয়ে সমাজের জন্য কাজ করেন তাদের বিপদে আমরা পাশে না দাড়ালে তাদের কাজ করার আগ্রহ হারিয়ে ফেলব। ভালো মানুষ আর সাংবাদিক পেশায় আসতে চাইবে না। তাই আমরা অবিলম্বে সাংবাদিক নিজাম উদ্দিন টিপুর মামলা প্রত্যাহার ও নি:শর্ত মুক্তি চাই। এবং টিপুর মুক্তির জন্য যে কমিটি গঠন করা হয়েছে অসুস্থ হয়েও বিবেকের তাড়নায় আমি এ দায়িত্ব নিলাম। আপনার তাকে সহযোগীতা করুন। আমি অসুস্থ আগামীকাল চিকিৎসার জন্য ঢাকায় যাব। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন। মুক্তি পরিষদের মাধ্যমে আপনারা কার্যক্রম চালিয়ে যান তাতে আমার পূর্ণ সমর্থন রয়েছে।

সাবেক ছাত্রনেতা মুফতি আনিসুর রহমান তিতাসের পরিচালনায় টিপু মুক্তি পরিষদ এর সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক সিলেট ট্রেড সেন্টার ব্যবসায়ী কমিটির সভাপতি ছাদ মিয়া, সিলেট ট্রেড সেন্টার ব্যবসায়ী কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি আলেক মিয়া, সিলেট ট্রেড সেন্টার ব্যবসায়ী কমিটির সহ-সভাপতি কয়ছর আহমদ, সিলেট ট্রেড সেন্টার ব্যবসায়ী কমিটির সাধারণ সম্পাদক রাজু আহমদ, সিলেট ট্রেড সেন্টার ব্যবসায়ী নেতা মাসুদ আহমদ, ডাঃ শেখ মনসুর রহমান, বখতিয়ার আহমদ ইমরান, যুক্তরাজ্য কমিউনিটি নেতা শেখ মাহবুবুর রহমান মনজুর, যুক্তরাজ্য কমিউনিটি নেতা শেখ মুজিবুর রহমান, যুক্তরাজ্য কমিউনিটি নেতা শেখ মুস্তাফিজুর রহমান মতি, তরুণ সমাজসেবক শেখ মাহফুজুর রহমান মুন্না, বাংলাদেশ নাগরিক অধিকার পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাংবাদিক মোঃ ইসলাম আলী, সদস্য সচিব সাংবাদিক এম. এ মালেক, সদস্য ২০নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জালাল মিয়া, বঙ্গবন্ধু পরিষদের ২০নং ওয়ার্ডের সভাপতি আজিজুর রহমান, গোয়াইনঘাট সংবাদ পত্রিকার সম্পাদক এম. এ রহিম, দৈনিক একাত্তর বাংলাদেশ জেলা প্রতিনিধি শহীদ আহমদ খান, সিলেট ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মইনুল ইসলাম আশরাফী, সিলেট জনতা ঐক্য পরিষদের সভাপতি এম. এ মামুন, মাওলানা ইমাম উদ্দিন, সিলেট ল’ কলেজ ছাত্র ফোরামের আহবায়ক হিলাল উদ্দিন শিপু, নাগরিক অধিকার বাস্তবায়ন পরিষদের প্রচার সম্পাদক আল আমিন, সিলেট সামজিক ছাত্র অন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক মকসুদ আহমদ মুন্না, মোঃ রেজাউল করিম, সহ-সভাপতি মীর মুন্না, সাংগঠনিক সম্পাদক আলম আহমদ, নোমান আহমদ ফরহাদ, সিলেট ডাব কল্যাণ সমিতির সভাপতি আহমদ আলী।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *