টিকা প্রদানে দক্ষিণ এশিয়ায় পিছিয়ে বাংলাদেশ

বিশ্ব

দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে গত দুই মাসে করোনা প্রতিরোধক টিকাদান কার্যক্রমে বেশ অগ্রগতি হয়েছে। তবে বাংলাদেশ এখনও পিছিয়ে আছে।
বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) প্রকাশিত বিশ্ব ব্যাংকের ‘মোড় পরিবর্তনঃ ডিজিটাইজেশন ও সেবানির্ভর উন্নয়ন’ প্রতিবেদনে এসব তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।
দক্ষিণ এশিয়ার আটটি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান সাত নম্বরে। আট নম্বর অবস্থানে আছে আফগানিস্তান।

জানা গেছে, গত সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশে প্রতি ১০০ জনের মধ্যে ১৪ জন কমপক্ষে এক ডোজ টিকা পেয়েছেন। অন্যদিকে ভুটান ও মালদ্বীপের ৬০ শতাংশ মানুষকে টিকার দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে। ভারতে দ্বিতীয় ডোজ টিকা নিয়েছে ১৫ শতাংশ মানুষ।

প্রতিবেদনে বাংলাদেশ প্রসঙ্গে বলা হয়েছে, ২০২০-২০২১ অর্থবছরের দ্বিতীয়ার্ধ থেকে বাংলাদেশের অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়াচ্ছে। ভবিষ্যতে দেশটির অর্থনীতি আরও চাঙা হতে পারে। তবে তা নির্ভর করছে মূলত টিকা দেওয়ার ওপর। চলতি অর্থবছরের জাতীয় বাজেটে জিডিপিতে প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা ৭ দশমিক ২ শতাংশ নির্ধারণ করা হয়েছে।

বিশ্ব ব্যাংক বলছে, করোনা‘র ধাক্কা কাটিয়ে বাংলাদেশের অর্থনীতি আবার উচ্চ প্রবৃদ্ধির দিকে যাচ্ছে। চলতি অর্থবছরে মোট দেশজ উৎপাদনে (জিডিপি) ৬ দশমিক ৪ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে সংস্থাটি।

সংস্থাটির ধারণা, বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি আগামী অর্থবছরে (২০২২-২০২৩) বেড়ে ৬ দশমিক ৯ শতাংশ হতে পারে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *