গোয়াইনঘাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অনিয়ম-অব্যবস্থাপনা, সরকারি সময়সূচি উপেক্ষিত

সিলেট

গোয়াইনঘাট প্রতিনিধি :
সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বিরাজ করছে অনিয়ম- অব্যবস্থাপনা। সকাল ৮টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত আউটডোর সেবা প্রদানের কথা থাকলেও শুরু হয় সাড়ে ১০টা থেকে ১১টায়, দুপুর ১টা বাজতেই বন্ধ করে দেয়া হয় কার্যক্রম। এছাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বিরাজ করছে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ। এদিকে স্বাস্থ্য প্রশাসক শহরে থেকেই দায়িত্ব পালন করেন।করোনার টিকা প্রদানেও সঠিক তথ্য জনসাধারণকে না জানানোর কারণে প্রতিদিন দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন টিকা গ্রহীতারা।

গোয়াইনঘাট উপজেলার ৫০ শয্যা বিশিষ্ট এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সরকারি সময়সূচী উপেক্ষিত । সকাল ৮টা থেকে আউটডোর সেবা শুরু হয়ে বেলা আড়াইটা পর্যন্ত চলার নিয়ম থাকলেও সেবা কার্যক্রম শুরু হয় সাড়ে ১০টা থেকে ১১টায়, আর দুপুুর ১টা বাজতেই বন্ধ হয়ে যায়।

উপজেলার বিভিন্ন জায়গা থেকে আগত সেবা গ্রহীতারা বলেন, “এটা নিয়মে পরিণত হয়েছে। স্বাস্থ্য প্রশাসক হাসপাতালে অবস্থান না করায় সরকারি সময়সূচি মানা হচ্ছে না। বিরাজ করছে অনিয়ম-অব্যবস্থাপনা।”
গত ১১ সেপ্টেম্বর প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শনের পর জনসাধারণের মনে আশা ছিলো সেবাদানে পরিবর্তন আসবে। কিন্তু কোন পরিবর্তন আসেনি। কোভিড-১৯ এর টিকা প্রদানে চরম জনদুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে নর- নারীদের।
জনসাধারণের অভিযোগ, উপজেলার ১৬/১৭ কিঃ মিঃ দূর থেকে ৪/৫ দিন এসেও টিকা নিতে পারছেন না। সময় শেষ হয়ে গেছে, ম্যাসেজ আসেনি ইত্যাদি বলে কাউকে ফিরিয়ে দেয়া হয় আবার সংশ্লিষ্ট কর্মীরা কাউকে রুমে নিয়ে টিকা প্রদান করেন। এ নিয়ে সাধারণ মানুষের মনে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। টিকার সময়সুচিও সাধারণ মানুষদের জানানো হয়নি।

সিলেটের সিভিল সার্জনের নিকট মঙ্গলবার দুপুরে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, টিকা প্রদান সকাল ৯টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত চলবে। রেজিষ্ট্রেশনের পর ম্যাসেজ আসতে হবে। প্রতিদিন ২শত জন টিকা পাবে আর আউটডোর সেবা সকাল ১০টা থেকে বিকেল আড়াইটা পর্যন্ত চলবে।
মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে দেখা যায়, সারিবদ্ধ নর-নারী দাঁড়িয়ে থাকলেও শুরু হয়নি টিকা প্রদান কার্যক্রম। ৫০ শয্য বিশিষ্ট হাসপাতালটি অনিয়ম-অব্যবস্থাপনায় নিজেই রোগীতে পরিনণত হয়েছে। এলাকার লোকজনের ভাগ্য জুটছে না সরকারের স্বাস্থ্য সেবার সুযোগ-সুবিধা। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন এমনটাই প্রত্যাশা করেন গোয়াইনঘাটের জনসাধারণ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *