ইন্ডিপেন্ডেন্স কাপ থেকে তামিমদের বিদায়

খেলাধুলা

টানা দুই ম্যাচে হেরে ইন্ডিপেন্ডেন্স কাপ থেকে ছিটকে গেছে ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোন, এই দলটির হয়ে মাঠে ফিরেছিলেন তামিম ইকবাল। প্রথম ম্যাচে ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোনের কাছে ২২ রানে ও দ্বিতীয় ম্যাচে বিসিবি সাউথ জোনের কাছে হেরেছে ৩ উইকেটে। 

সংক্ষিপ্ত স্কোর: ইস্ট জোন- ১৯২/৮ (৫০ ওভার)

সাউথ জোন- ১৯৩/৭ (৪৫.৫ ওভার)

ফল: সাউথ জোন ৩ উইকেটে জয়ী।

মঙ্গলবার (১১ জানুয়ারি) সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাটিং করতে নেমে ৮ উইকেট হারিয়ে মাত্র ১৯২ রান করে ইস্ট জোন। লক্ষ্যে নেমে ৭ উইকেট হারিয়ে ২৫ বল হাতে রেখে জয়ের বন্দরে পৌঁছায় ফরহাদ রেজার সাউথ জোন। 

এই জয়ে টুর্নামেন্টে টিকে থাকল সাউথ। শেষ ম্যাচে ওয়ালটন সেন্ট্রালের বিপক্ষে জয়-পরাজয়ের ওপর নির্ভর করবে তাদের ফাইনাল ভাগ্য। দুটি করে ম্যাচের পর সর্বোচ্চ ৪ পয়েন্ট নিয়ে সবার উপরে আছে ওয়ালটন সেন্ট্রাল। টানা দুই জয়ে ফাইনালে এক পা দিয়ে রেখেছে তারা। এছাড়া সাউথ ও নর্থের পয়েন্ট সমান ২টি করে। রানরেটে এগিয়ে থেকে নর্থ দ্বিতীয় অবস্থানে আছে। আর সাউথ তৃতীয়। 

ইস্ট জোনের দেওয়া ১৯৩ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারেতে থাকে সাউথ। সপ্তম উইকেটে ফরহাদ-মেহেদী হাসানের ৫০ রানের জুটি রক্ষা করে সাউথকে। স্কোর টাই হওয়ার পর ফরহাদ ফেরেন ১৫ বলে ১৬ করে। জয়ের নায়ক মেহেদী হাসান অপরাজিত ছিলেন ৫০ বলে ৩৭ রান করে। 

এ ছাড়া মায়শুকুর রহমান (২৭), জাকির হাসান (২৭), নাহিদুল ইসলাম (২৭) ক্রিজে থিতু হয়েও ইনিংস লম্বা করতে পারেননি। তবে শেষ পর্যন্ত বিপদ ঘটেনি মেহেদী ঢাল হয়ে দাঁড়ালে। ইস্ট জোনের হয়ে সর্বোচ্চ ৩টি করে উইকেট নেন আফিফ হোসেন ও নাঈম হাসান। 

এর আগে ব্যাটিং করতে নেমে লড়াকু স্কোর হয়নি ইস্ট জোনের। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকা দলটি ১৯২ রান করে ইমরুল কায়েসের ৬৯ রানে ভর করে। ৯৭ বলে ৫ চার ও ১ ছয়ে এই রান করেন ইমরুল। ফিফটি পেয়েছিলেন ৮০ বলে। এ ছাড়া ইরফান শুক্কুর ৩৩ ও আফিফ হোসেন ২৯ রান করেন। তিন মাস পর মাঠে ফিরে সুবিধা করতে পারেননি তামিম। ২৬ বলে ৯ রান করে ফেরেন তিনি। 

সাউথ জোনের হয়ে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন মোস্তাফিজুর রহমান। তিনি ১০ ওভারে ৪৪ রান দেন। এ ছাড়া ২ উইকেট নেন নাহিদ। ব্যাট হাতে ২৭ রানের পাশাপাশি বল হাতে জোড়া উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরা হন নাহিদ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *