আবারও এসপি ফরিদের চমক, ব্যাংকের বুথ লুটপাটের প্রধান পরিকল্পনাকারীও আটক

সিলেট

আবারও চমক দেখালেন সিলেটের পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিন। সিলেটে যোগদানের পর থেকে একের পর এক সাফল্য অর্জন করেছেন তিনি। তারই ধারাবাহিকতায় এসপি ফরিদের ক্যারিয়ারে সাফল্যের আরেকটি পালক যুক্ত হয়েছে।

তার নির্দেশ এবং তত্ত্বাবধানে টানা তিনদিন অভিযান চালিয়ে হবিগঞ্জ থেকে আটক করা হয়েছে ওসমানীনগর উপজেলার শেরপুরের ইউসিবি ব্যাংকের বুথ ভেঙে ২৪ লক্ষাধিক টাকা লুটপাটের প্রধান পরিকল্পনাকারী সাফিউল কবির জাকিরকে।

আজ বুধবার ( ২২ সেপ্টেম্বর ) বিকেলের দিকে তাকে আটক করতে সক্ষম হন সিলেট জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি সাইফুল আলম রোকন। এসময় সহযোগী অন্যান্য পুলিশ সদস্যরাও তাকে সহযোগীতা করেন।

জানা গেছে, ঘটনার পর থেকেই এটিএম বুথ লুটেরাদের গ্রেফতারে নানা পরিকল্পনা প্রনয়ন করে এগুচ্ছিলেন সিলেটের পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিন। তারই ধারাবাহিকতায়, টানা তিনদিন অভিযানের পর অবশেষে আসে সাফল্য। গ্রেফতার করা হয় জাকিরকে। এসময় এটিএম বুথ লুটপাটে ব্যবহৃত পালসার মোটরসাইকেলটিও জব্দ করা হয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা (ডিবি) সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগ এটিএম বুথ লুটপাটের সাথে জড়িত আরও ৩ জনকে গ্রেফতার করে। জাকিরসহ এ ঘটনায় মোট ৪ জনকে গ্রেফতার করা হল।

বড় ধরনের অপরাধীদের গ্রেফতারে এর আগেও এসপি ফরিদ যথেষ্ট দক্ষতার পরিচয় দেখিয়েছেন। তার প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে ও নির্দেশনায় সিলেটের সাম্প্রতিককালে আলোচিত হত্যাকান্ড রায়হান হত্যা মামলার প্রধান অভিযুক্ত বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ির সাবেক ইনচার্জ আকবর হোসেনকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়েছিল।

উল্লেখ্য, গত ১২ সেপ্টেম্বর রাতে সিলেটের ওসমানীনগর থানার শেরপুরের ইউসিবি ব্যাংকের এটিএম বুথের সিকিউরিটিকে মারধর করে  হাত পা বেঁধে বুথ থেকে ২৪ লক্ষাধিক টাকা লুটপাট করে জাকির শামীম নূর মোহামাম্মদ সেবুল ও মো. আব্দুল হালিম এবং তাদের অন্যান্য সহযোগীরা। ঘটনার সাথে জড়িত অন্যান্যদেরও দ্রুত আইনের আওতায় আনতে পুলিশ তৎপর বলেও জানিয়েছেন পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *